ক্যরিয়ার পরিকল্পনা নিয়ে কিছু মোটিভেশন । Bangla Motivation

নাসিম ভাই এর - (ফ্রিল্যান্সিং ) বই থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে । 


ক্যরিয়ার পরিকল্পনা নিয়ে কিছু মোটিভেশন  । Bangla motivation - mr laboratory
ক্যরিয়ার পরিকল্পনা নিয়ে কিছু মোটিভেশন  । Bangla motivation 


আমরা অনেকেই বলে থাকি যে, দেশে চাকরি পাওয়া যায় না । আবার অন্যদিকে বলা হয় যোগ্য প্রার্থী নেই । কিন্তু বাস্তব হলো , যোগ্য ক্যরিয়ার পরিকল্পনা নেই । আমি একটি ছোট হিসাব দিচ্ছি । একটু ভেবে দেখুন ।
আপনি যদি গ্র্যাজুয়েশন শেষ তারপর চাকরির খোজ করেন তবে হয়তো আপনার শিক্ষা অনুযায়ী  যোগ্য চাকরিটি পেতে জুতা ক্ষয় হবে  । হয়তো একদিন পেয়ে যাবেন । খুব কম মানুষই আছে যারা প্রথমবারেই ভালো স্যালারির চাকরি পেয়ে থাকেন । তাদের কথা না বাদ দেওয়া যাক ।

গ্র্যাজুয়েশন শেষ করতে আর ভালো একটি চাকরি পেতে আমাদের প্রায় ২৭-২৮ বছর বয়স হয়ে যায় । আবার এমনও হয় যে ৩০ বছর বয়সেও ভালো কোন চাকরি মেলে না , অন্যদিকে ব্যবসা করার মনমানসিকতাও থাকে না । ৩০ বছরে মাত্র এই জিনিসের পেছনে দৌড়ালেন ? বাঁচবেন কতদিন ? গড় আয়ু ৬০-৬৫ ধরে নিন । বাকিটা আল্লাহর ইচ্ছে । জীবনের প্রায় ৫০% দিয়ে দিচ্ছেন লেখাপড়া আর চাকরির খোজার পেছনে । বাবা-মা'কে সাপোর্ট করবেন কখন ? নিজের ফ্যামিলি তৈরি করবেন কখন ? আর বাকি ৫০% লাইফে ভালো কিছু হবে বলে মনে হচ্ছে কি ? হওয়ার সম্ভবনা ও রয়েছে । কিন্তু সেরকম  মানসিকতা , এনার্জি আর passion আমাদের দেশের মানুষের নেই বললেই চলে ।
সুতরাং এভাবে চিন্তা করলে জীবনে কখনো বড় কিছু হওইয়া যায় না ।
জীবনে সফলতা আর সার্থকতা চাইলে স্কুল-কলেজ জীবন থেকেই নিজের ভবিষ্যত পরিকল্পনা করতে হবে । শুধু লেখাপড়ায় জীবনের প্রায় ৫০% সময় দিয়ে দিলে আপনি উঠে দাঁড়াতে নাও পারেন । তাই যা করার সময় থাকতে করে নিন । প্রশ্ন আসতে পারে যে কী করা যায় । হ্যাঁ অনেক কিছুই করা যায় ।কমফোর্ট জোন থেকে বের হয়ে আসতে হবে । OUT OF THE BOX চিন্তা করতে হবে । তাহলে ভালো কিছু করা সম্ভব । OUT OF THE BOX মানে হচ্ছে , আমি একটি সমাজে বা একটি দেশে বাস করি আর এই দেশে কি হচ্ছে না হচ্ছে , কে কোন ক্যারিয়ার নিয়ে বেছে নিচ্ছে আমিও নেব এটা সেটা না ভাবে আজ সারা বিশ্বে মানুষ কীভাবে ক্যারিয়ার গড়ছে এবং কীভাবে সময়কে কাজে লাগাচ্ছে সেটি ভাবা । আজকে আমার মতে, যুবক-যুবতীর জন্য সময় নষ্ট করার মাধ্যম ফেইসবুক ও ইউটিউব সহ বিভিন্ন স্যোশাল মিডিয়া । এর মানে এই নয় যে সবার সময় নষ্ট করেন । কিন্তু অধিকাংশ ছেলে-মেয়েরাই সময় নষ্ট করে থাকেন । সময়ের পড়ালেখা সময়ে না করে বই নিয়ে বসেও ফেইসবুক ওপেন থাকে আজকাল অনেকেরই । এক্ষেত্রে পড়ালেখায় মন থাকে না ঠিকমতো । যা-ই হোক, সেদিকটা নিয়ে লেখার প্রইয়োজন নেই । নিজের ভালোটা নিজেই বুঝতে হবে - এটাই মুখ্য বিষয় ।

THINK OUT OF THE BOX !! কীভাবে > MARK ZUCKERBERG-কে আমরা সবাই চিনি । যিনি ফেইসবুক নির্মাতা । ০৪ ফেব্রুরারি ২০০৪ তিনি ফেইসবুক তৈরি করেন । তিনি যখন স্কুল কলেজ লাইফে ছিলেন তখন থেকেই কোডিং প্রোগ্রামিং নিয়ে রিচার্স করতেন গুগলে এবং বিভিন্ন রকমের গেইম এবং সফটওয়ার তৈরি করতেন । এরপর থেকেই তিনি হাভার্ড ইউনিভার্সিটি লাইফে এটি নিয়ে এগিয়ে যান । পর্যায়ক্রমে ফেইসবুক ২০০৫-২০১০/২০১২ সালের দিকেই খ্যাতি অর্জন করে এবং তিনি সফল হন । ২০০৬ সালের দিকে তিনি মিলিয়নার হয়েছেন । যখন তার বয়স ছিল ২২  বছর । হাভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেছেন ৩৩ বছর বয়সে । এখন তিনি বিলিয়নার ।

এবার আপনি ভাবুন , একটি ছেলে হয়ে যদি মাত্র ২২ বছর বয়সে মিলিয়ন (১০ লাখ + প্রায় ৮ কোটি বাংলাদেশি টাকা ) ডলার উপর্জন করতে পারে তাহলে তার মতো ২২ বছর বয়সে অন্তত ৫% করতে পারবেন না ? ২% করলেও ১৫-১৬ কোটি টাকার মালিক । । আর মনে রাখবেন টাকার মালিক হতে গিয়ে তিনি অবৈধ রাস্তা ফলো করেন নি । সবকিছুই ঠিক রেখেছিলেন । লেখেপড়া একটু ডাউন হওয়ার কারনে হয়তো ৩৩ বছর বয়সে গিয়ে গ্র্যাজুয়েট হইয়েছেন । তাতে কি ? লেখাপড়ার কোন বয়স নেই । সারাজীবন শেখা যায় ।
এখন আপনি হয়তো মনে মনে ভাবছেন যে, সব উপরওয়ালা  দিয়েছেন । ভাগ্য ছিল , তার যথেষ্ট ফেসিলিটি ছিল । কারন তিনি আমেরিকান বাসিন্দা এটা সেটা । কিন্তু you are the maker of your own fortune ! সৃষ্টিকর্তা অন্ত্রর্যামি । তিনি সব জানেন কিন্তু ভাগ্য পরিবর্তনের রাস্তা বন্ধ রাখেন নি । সুতরাং অজুহাতে কাজ হবে না । মার্ক জুকারবার্গ এর কাছে কম্পিউটার আর ইন্টানেট ছিল সেই ২০০৪ সালে । আর আজ আমাদের হাতের মুঠোয় স্মার্টফোন , অনেকের কাছে কম্পিউটার, ল্যাপটপ রয়েছে , ইন্টারনেট রয়েছে । কোনটি নেই আমাদের কাছে ? তারপর ও অজুহাত কভাবে শতবার । কয়জন রয়েছেন যারা একটি কাজ , যেটি করলে মার্ক জুকারবার্গের মতো করে ২২ বছর বয়সে অন্তত ১% করতে পারবেন এবং সেটি শতবার চেষ্টা করেছেন । ১% ও খুজে পাওয়া যাবে না , শতবার তো দুরের কথা । ৩-৪ বার একটা ব্যাবসা করতে গিয়ে লস খেয়ে কপালে থাপ্পর দিয়ে বলি এইটা আমার ভাগ্যে নেই । এগুলো আমার জন্য আসেনাই । আসলে ভাগ্যে থাকা না থাকা ব্যপার না । আপনার এনার্জি নেই । আজ যারা সফল তারা শতবার চেষ্টা করে সফল ও সার্থক হয়েছেন । আমরা একটা গেইম খেলেতে গিয়ে একটি লেভেল পার করতে হাজারবার চেষ্টা করি । কিন্তু জীবনে বড় কিছু করার জন্য ২০ বার ও চেষ্টা করি না । তার আগেই এনার্জি হারিয়ে ফেলি । আর লেখাপড়া শেষে চাকরি না পেলে বলে থাকি যে মামা-চাচা নেই । ভালো চাকরি নেই । সেটি হোক না কোন চাকরি দিয়ে বা ব্যবসা করে । জীবনে বড় হতে গেলে রাস্তা বদলান উদ্দেশ্য নয় ।

আমরা আজ ফেইসবুক ব্যহার করি । বিদেশিরাও করে কিন্তু তফাত একটাই আমরা অকাজে সারাদিন ফেইসবুকে সময় দিয়ে দি । আর তারা সময়কে কাজে লাগা৭য় , ফেইসবুক কে কাজে লাগায় । প্রয়োজনে ব্যবহার করে  তারা । কিন্তু আমরা বিনোদনের নাম করে ইউটিউবে আর ফেইসবুকে যে টাইমটা নষ্ট করি তার মুল্য আজ বুঝব না । বুঝব যেদিন রাস্তা অন্ধকার দেখব ।

বর্তমানে আপনি যেই বয়সেই রয়েছেন,  যদি সেলফ ডিপেন্ডেড না হয়ে থাকেন ,  তবে আপনার মাথার উপর যে ছায়া/সাপোর্ট দাতা রয়েছেন , তাকে বাদ দিয়ে ৫ মিনিট নিজের অবস্তান চিন্তা করুন, আপনি আপনার আসল অবস্থান খুজে পাবেন । আজ যদি তিনি না থাকতেন কাল খাবারের জন্য টাকা কোথায় পেতেন ? পরশু সেমিস্টার ফি কোথা থেকে দিতেন ?
so without your father or shadow, your are nothing !
বাবার অনেক টাকা রয়েছে , ব্যাংক-ব্যালেন্স রয়েছে । কিন্তু শেষ হতে দেরি নেই । আল্লাহ চাইলেই এক নিমিষেই ধ্বংস করে দিতে পারেন । এ রকম অনেক দেখা যায় । অনেকের ইন্ডাস্ট্রি আগুনে পুড়ে যায় আর উঠে দাড়াতে পারেন না । অনেকের অসুস্ততায় ধ্বংস হয়ে যায় । সুতরাং, বাবার রয়েছে ভেবে ক্যারিয়ার পরিকল্পনা না থাকলে জীবনে সফল হওয়া সম্ভব নয় ।




বইটি আমার অনেক ভালো লেগছে , যারা যারা এখনো এই বইটি পড়েন নি তারা এখনি রকমারি থেকে অর্ডার করে দিতে পারেন । দেশের যেকোনো জায়গায় এরা আপনাকে পৌছে দিবে । বই হাতে পাওয়ার পর টাকা পরিশোধ করতে পারবেন । অর্ডার করতে ভিসিট করুন । 


































Don't be selfish... Share this article with your friends :)
StumbleUpon LinkedIn Pinterest Twitter Facebook Digg Reddit

Related post

1 comment:

Give your valuable feedback about this post

এই পোষ্ট টি কেমন লেগেছে আপনার মুল্যবান মতামত লিখুন .

Next button mr laboratory

Do you want to post to this blog?
More menu
Populer Category