Home

দু’জনই মারা গিয়েছেন, নিশ্চিন্ত ছিলেন ঐন্দ্রিলা

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: হ্যাঁ, হ্যাঁ--দু’টোই শেষ। রান্নাঘরের দরজায় তখন পড়ে রক্তাক্ত পরিচারিকা কল্পনা। ড্রয়িংরুমে গৃহকর্তার বড় মেয়ে শাল্মলী। রক্তাক্ত তিনিও। দু’জনই সংজ্ঞাহীন। শরীরে সাড় নেই দেখে দু’জনকেই মৃত ধরে নিয়েছিলেন ‘আগন্তুক’ তরুণী, যিনি কিনা শাল্মলীরই সম্পর্কে মামাতো বোন এবং তাঁর সঙ্গী, খুন ও লুঠপাটের জন্য যাঁকে ভাড়া করেছিলেন ওই তরুণী। কল্পনা-শাল্মলী, দু’জনের মাথাতেই ভারী হাতুড়ির ঘা বসিয়েছিল ভাড়া করা সেই দুষ্কৃতী। মৃত্যু নিশ্চিত, কোনও সাক্ষী রইল না-নিশ্চিন্ত হয়েই এর পর ঘর থেকে টাকাপয়সা, গয়নাগাটি লুঠ করে চম্পট দেন তরুণী ও সঙ্গী দুষ্কৃতী। তাঁরা ভেবেছিলেন, সব হচ্ছে প্ল্যানমাফিক। ধরা পড়ার সম্ভাবনা শূন্য। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই জ্ঞান ফিরে আসে শাল্মলীর। তিনিই পুলিশকে জানান, আগন্তুক অপরিচিত ডাকাত নয়, তাঁরই মামাতো বোন ঐন্দ্রিলা রায়। শেষমেশ রাত ১২টা নাগাদ দক্ষিণ ২৪ পরগনার চম্পাহাটির বাড়িতে যখন ফিরছেন শাল্মলী, ধরা পড়ে যান। সঙ্গে তাঁর বন্ধু রূপম সমাদ্দারও। তাঁদের জেরা করে হদিস মেলে ভাড়াটে দুষ্কৃতী ভোলা ওরফে পবিত্র দেবনাথের। খুন ও লুঠপাটে যাঁর উপর এত ভরসা করেছিলেন ঐন্দ্রিলা-রূপম, সেই ভোলার আত্মবিশ্বাসই কাল হল। হরিদেবপুরের ডায়মন্ড পার্কে চিকিৎসক অরূপকুমার দাসের ফ্ল্যাটে ডাকাতি ও খুনের চেষ্টার ঘটনায় তিন জনকেই বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হয়। ধৃতদের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। তদন্তকারী অফিসাররা বলছেন, পরিকল্পনাটা প্রায় নিখুঁত ছিল। কানাডায় পাড়ি দেওয়ার জন্য আত্মীয় চিকিৎসকের কাছ থেকে ১৯-২০ লক্ষ টাকা চেয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। রাজি হননি অরূপ। তার পর থেকেই খুন করে লুঠের পরিকল্পনা চলছিল। পুলিশের দাবি, পরিকল্পনার নেপথ্যে ছিলেন ঐন্দ্রিলার বন্ধু রূপম। পেশায় যিনি আদালতের মুহুরি। শাল্মলীদের বাড়িতে মামাতো বোন ঐন্দ্রিলার নিয়মিত যাতায়াত ছিল। বাড়িতে লুঠপাট চালাতে পারলে একলপ্তে ৬০-৭০ লক্ষ টাকা মিলবে বলে ধরে নিয়েছিলেন তাঁরা। শুধু খুঁজছিলেন উপযুক্ত মওকা। আর খুনের জন্য পেশাদার লোক। সেটাও জুটিয়ে দেন রূপমই। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিভিন্ন থানায় চুরি-ছিনতাইয়ের অভিযোগ রয়েছে ভোলার বিরুদ্ধে। সে-ই উপযুক্ত লোক--ধরে নিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা-রূপম। তাঁদের ধারণা ছিল, বুধবার যখন অপারেশন হবে, তখন বাড়িতে শুধুমাত্র শাল্মলী থাকবেন। একা তাঁকে কাবু করা কঠিন হবে না। পরিকল্পনামাফিক বেলা ২টো-সওয়া ২টো নাগাদ ডায়মন্ড পার্কে যান ঐন্দ্রিলা-ভোলা। রূপম টালিগঞ্জ ফাঁড়ির কাছে থেকে যান। তাঁর কাছেই বাকিরা রেখে যান নিজেদের মোবাইল, যাতে পরবর্তী সময়ে মোবাইলের টাওয়ার লোকেশনের যুক্তি খাড়া করে বলা যায়, ঐন্দ্রিলারা তো ঘটনার সময় হরিদেবপুরে ছিলেনই না। দু’জন বেল বাজাতেই দরজা খুলে দেন কল্পনা। ঐন্দ্রিলাকে আগে থেকেই তিনি চিনতেন। কল্পনা দু’জনকে বসতে বলেন। দোতলায় তখন স্নান করছিলেন শাল্মলী। কল্পনা আগন্তুকদের জন্য জল আনতে গেলে পিছু পিছু রান্নাঘরে যান দু’জন। পিছন থেকে তাঁর মাথায় হাতুড়ির বাড়ি মারেন ভোলা। দু’-দু’বার। তাঁর চিৎকারে শাল্মলী দ্রুত স্নানঘর থেকে বেরিয়ে নীচে আসেন। তখন তাঁকে চেপে ধরে ভয় দেখিয়ে সিন্দুকের নম্বর লকের পাসওয়ার্ড জেনে নেন দু’জন। সিন্দুক খুলে যেতেই তাঁর মাথাতেও হাতুড়ির ঘা বসিয়ে দেন ভোলা। দু’জনকে অচৈতন্য অবস্থায় ফেলে চম্পট দেন অভিযুক্তরা।



Credit eisamay

bangla news,bangla news today,latest bangla news,bangla news 24,all bangla news,bangla news live,bd news,bangla news update,news bangla,bangladesh news today,news,bangladeshi news,bangladesh tv news,news live,bangla tv news,breaking news,etv bangla news,bangla news 2019,bangla live news,today bangla news,atn baagla news,www bangla news today,24 ghanta bangla news,bangla latest news update,news bangla,bangla news,atn bangla khobor,bangla news today,all bangla channel live,abp ananda bangla khabar,latest bangla news,bangla,ajker khobor,bangla tv,atn bangla songbad,all bangla tv,tv atn bangla,west bengal,bangla tv live,live bangla channel,etv bangla news,etv news bangla,live gtv bangla,bd tv atn bangla,bangla all news,bangla news live,bangla live news,live news bangla,banlgla video news,bangla news today,latest bangla news,bangla news,today bangla news,news bangla,bangla news update,bangla news live,bangla news video,bd news,today news bangla,news,bangla news 24,bd news today,bangladesh news,bangla forex news site,news portal website,news live,bd news bangla,news18 bangla live,modi news bangla,news18 bangla,india news bangla,world news bangla,free bangla blog site,latest news bangla,

আমাদের এই ব্লগে আপনি ও লিখতে পারবেন । এর জন্য আপনি আপনার লিখা আমাদেরকে ইমেইল করতে পারেন । অথবা আমাদের একজন সদস্য হয়ে ও পোস্ট করতে পারবেন । আমাদের ওয়েবসাইট এর সদস্য হতে চাইলে ভিসিট করুন । আপ্বনার লিখা অবস্যয় শিক্ষনীয় হতে হবে । আমাদের ইমেইল ঠিকানা support@mrlaboratory.com
Share This

0 Response to "দু’জনই মারা গিয়েছেন, নিশ্চিন্ত ছিলেন ঐন্দ্রিলা"

Post a Comment

এই পোষ্ট টি কেমন লেগেছে আপনার মুল্যবান মতামত লিখুন ।

Popular Posts