ফেসবুক স্পামিং করার নিয়ম। কিভাবে ফেইসবুকে স্পেমিং করবেন ।



    হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন আপনার সবাই । আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন । আমিও ভালো আছি । বর্তমান এ ডিজিটাল যুগ এ হ্যাকিং নিয়ে সবারই অনেক আগ্রহ । হ্যাকিং নিয়ে আমি পুর্বেও অনেক পোস্ট করেছি । আরো করবো। এই সমস্ত নিত্য নতুন পোস্ট পাওয়ার জন্য আমাদের ফেইসবুক , ওয়েবসাইট , এবং ইউটিউবের সাথে থাকুন ।  আজ কথা বলব হ্যকিং এর আরেক ক্ষুদ্র ভাগ স্পামার নিয়ে । সত্যি বলতে কি এখনকার যুগে হ্যাকারদের থেকে স্পামার রা বেশি স্মার্ট ভাবে নিজেদের । যা কিনা সম্পূর্ণ ভুল এবং হাস্যকর। তো চলুন শুরু করা যাক।

    প্রথমেই আমরা জানব স্পামিং কি?


    অনেক ভাবেই স্পামিং করে স্পামার রা। আজ আমি আপনাদের স্পামিং এর একদম শুরুর দিকের একটা নিয়ম জানাবো ।
    স্পাম হছে অনাকাঙ্খিত,অবাঞ্চিত কোনো বার্তা বা লিংক , যা সাধারণত ইমেইল বা অন্য মাধ্যমে ইউজারের কাছে প্রেরণ করা হয়। স্পামের মাধ্যমে সাধারণত বিভিন্ন সস্তা পন্যের বা সেবার বিজ্ঞাপন যেমন বিভিন্ন প্রকার লোন, দ্রততম সময়ে বড়লোক হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ, অর্থ উপার্জনের উপায়, লটারি সহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য বিজ্ঞাপন ইত্যাদি প্রেরন করা হয়। অনেক সময় বিভিন্ন নিউজ গ্রুপ বা বুলেটিনবোর্ডে অপ্রাসঙ্গিক পোস্টকেও স্পাম বলা হয়। স্পাম নামটি এসেছে বিখ্যাত হরমেল ফুডের খাদ্যপন্য “স্পাম”(শূকরের মাংস থেকে তৈরী খাবার)থেকে।স্পামকে “জাংক মেইল” ও বলা হয়।
    কিভাবে স্পামিং শুরু করব?? আমারা ফেইসবুইক নিয়েই শুরু করব স্পেমিং
    (১) একজন ফেইসবুক স্পামার এর অনেকগুলা ফেসবুক আইডি থাকতে হবে, যেগুলা হতে তিনি রিপোর্ট করবেন; তবে সেসব আইডির এবাউটে ইনফো আপডেট থাকা উচিত।
    কিভাবে খুলবেন এত আইডি । তা জানতে এই আরটিকেল টি পরে আসুন ।
    (২) সাধারনত স্পামিং আইডিগুলা ফিমেইল হলে ভালো হয়(কারনটা পরের পয়েন্টে ক্লিয়ার করা হবে)।
    (৩) ফেসবুক আইডি ডিজেবল স্বয়ং মার্ক জুকারবার্গ করেন না। বরং ফেবু সিস্টেমই ঐ মার্কড(রিপোর্টেড) আইডি এনালাইসিস তাই এই সিস্টেমকেই বোকা বানিয়ে আপনাকে বাজিমাত করতে হবে।
    (৪)ফেসবুক আইডিতে মূলত কতো সংখ্যাতে রিপোর্ট হলে এটা বিবেচনা করা হয়না। বরং রিপোর্ট কতোটুকু অ্যাপ্রোপ্রিয়েট এটা মুখ্য বিষয়। তাই প্রয়োজনে রিপোর্ট করতে আইডির ভার্নাবিলিটি (দূর্বল দিক) খুজতে হবে, কিংবা প্রয়োজনে তা কাস্টমাইজ করতে হবে। তবে অধিক সংখ্যক রিপোর্ট হলে সেটা বেশ জোড়ালো হয় (এক্ষেত্রে গ্রুপ গ্যাং রিপোর্টে কাজটা সহজ)।
    (৫) মিচ্যুয়াল কিংবা ০২ স্টেপ মিচ্যুয়াল রিপোর্ট ভালো কার্যকর, তাই কোন আইডিতে রিপোর্ট করতে তাতে ফ্রেন্ড হওয়ার চেষ্টা করুন।সুচ হয়ে ঢুকবেন আর ফাল দিয়ে বেরুবেন।(ইটস কিলিং স্পাইয়িং ম্যান!)
    (৬) কোন আইডিতে যদি সিঙ্গেল নাম, উইয়ার্ড নাম, বিশেষ ক্যারেকটার হরফ, কিংবা এবাউট ইনফো অধিকাংশ অপূর্ন থাকে সেগুলিই ভার্নাবল আইডি। এছাড়াও আইডিতে যদি অটোলাইক ইত্যাদি নেওয়া হয় কিংবা আইডির নাম যদি ফেমাস কারো সাথে হুবহু মিলে যায় এবং ইনফোতেও মিল থাকে (মোদ্দাকথা কোন সেলিব্রেটি আইডির ক্লোন আইডি হয়) তবে সেগুলিও অন্যতম ভার্নাবল আইডি হিসেবে পরিগণিত হয়।
    (৭) সিঙ্গেল নামের আইডির ক্ষেত্রে (বিশেষত ইন্দোনেশিয়ান ইউজার না হলে, ইন্দোনেশিয়া বললাম তার বিশেষ কারণ আছে) তাতে ফেইক নেম এবং ফেইক আইডি ইস্যুতে রিপোর্ট করুন। এছাড়াও সকল রিপোর্ট করার শেষে আরেকটা close this account ইস্যুতে রিপোর্ট করবেন।
    (৮) ফ্রেন্ডলিস্টে কোন ছেলের আইডিতে স্পামিং করতে একটি ফিমেল আইডি হতে সেক্সুয়াল হ্যারেজমেন্ট ইস্যুতে রিপোর্ট করা যেতে পারে। এক্ষেত্র চ্যাটিং করতে তাকে এমন ওয়ার্ড বা শব্দ বলতে ইনফ্লুয়েঞ্জ করুন যা ফেসবুকক ওয়ার্ড ডিকশোনারী এর পরিপন্থী যেমন বিভিন্ন এক্সাইটমেন্ট সেক্সুয়াল ওয়ার্ড।
    (৯) কেউ আপনাকে বাজে কথা বললে আপনি This person is annoying me ইস্যুতে রিপোর্ট করুন।
    (১০) প্রোফাইল পিক এডিট করা হলে তার প্রোফাইল পিক রিপোর্ট করুন। আবার অস্পষ্ট ফটো, ন্যুড ফটো কিংবা মানুষের ফটো না হয়ে বিভিন্ন বস্তু,যেমন ফুল, ফল ইত্যাদি নন-হিউমেটিক ফটো যদি প্রোফাইল পিক হয় তবে তাতে রিপোর্ট করতে পারেন।
    (১১) ধর্মীয় বিষয়ে উষ্কানীমূলক টিউন কিংবা কাউকে হ্যারেজ করা হয়েছে এমন টিউনেও ইস্যুতে রিপোর্ট করতে পারেন।
    (১২) ফেসবুকে আপনার নাম যদি sarmin sila হয় তবে আপনি ভিক্টিমকে যদি তার নিক নেম sila/sarmin করাতে পারেন তবে আপনার আইডি হতে প্রিটেন্ডিং রিপোর্ট কাজে দিবে।
    (১৩) আপনার আইডির ক্লোন তথা ফেইক আইডি খোলা হলে আপনার আইডি/আপনার মিচ্যুয়াল ফ্রেন্ডদের তাতে প্রিটেন্ডিং (আপনার ক্ষেত্রে ইস্যু হবে me আর আপনার ফ্রেন্ডরা করবে someone ইস্যুতে) রিপোর্ট করবেন।
    (১৪) কারো নাম যদি হবহু কোন সেলিব্রেটি আইডি/ তার প্রোফাইল ইনফোর সাথে মিলে যায় তবে তাতে প্রিটেন্ডিং রিপোর্ট হবে celebrity ইস্যুতে।
    (১৫) বাংলা নামের আইডিগুলাতে Fake/Name ইস্যুতে রিপোর্ট করতে পারেন।
    (১৬) আপনি আপনার সুইসাইড আইডি(সাধারনত যেসব আইডি হতে রিপোর্ট করা হয়) হতে ভিক্টিম আইডিতে অটো স্পামিং করে(যেমনি কাস্টম অটো ফলোয়ার/অটো লাইক) ইত্যাদি করে তারপর রিপোর্ট করতে পারেন।
    (১৭) সেল্ফ ড্রামা করে আপনি বিভিন্ন গ্রুপে ভিক্টিমের আইডি লিংক বলতে পারেন "আমি একজন রিকোভার মাস্টার; পারলে আমার এই আইডি রিপোর্ট করে ডিজেবল করে দেখা তো" এই জাতীয় প্ররচনামূলক টিউন হতে পাবলিক পটেনশিয়াল এনার্জিটিক রিপোর্ট পেতে পারেন।
    (১৮) আপনি বিভিন্ন লিংক হতে ভিক্টিমের সাথে এমন বিহ্যাভ করুন যেন তিনি আপনাকে ব্লক দেয় তাহলে একসময় যখন তাহার ব্লক লিস্ট ২০০/২৫০ ছাড়াবে তখন অটোমেটকালি তার আইডি ভেরিফিকেশনে পড়বে।
    (১৯) কোন গ্রুপ ব্যান করতে আপনি বিভিন্ন ফেইক আইডি হতে তাতে বাজে বাজে টিউন করুন; অতঃপর ভিন্ন আইডি হতে তাতে রিপোর্ট করুন; এইভাবেই স্পামারেরা সেল্ফ ড্রামা করে গ্রুপ ভ্যানিশ করে থাকে।
    (২০) আপনি ভিক্টিমকে এমন কিছু ব্যানড লিংক দিতে পারেন যাতে তিনি তা টিউন /টিউমেন্ট করতে প্ররোচিত হয় তাহলে তৎক্ষনাত তার আইডি টেম্পরারী ডিজেবল হবে।
    (২১) বার্থডে চেঞ্চ/নেম চেঞ্জ এমন আইডিতে রিপোর্ট বেশ কার্যকর হতে পারে।
    (২২)এমন একটি এনড্রোয়েড সফটওয়্যর আছে, যার নাম i am spammer apk যেটাতে ভিক্টিম লগইন করলে তার আইডি ডিজেবল হতে বাধ্য। আমি এটি পাবলিক এক্সপোজ করছি না।কেননা এটা আমার তৈরী তবে কেউ বিপদে পরুক তা চাই না।
    কিন্তু কখনো ভুলেও শুধু শুধু অহেতুক বিনা প্রয়োজনে স্পামিং রিপোর্ট করবেন না এতে আপনারা হিতে বিপরীত বিপদে পড়বেন।
    ------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
    টিউটোরিয়াল টি শুধু শিখার জন্য এবং এই ট্রিক্স গুলো ব্যবহার করে কোন খারাপ কাজ করলে আমরা দায়ী থাকব না । 
    --------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
    কিছু স্পেমিং কোড ব্যবহার করে ফেইসবুক আইডি নষ্ট করে দিন । 
    স্পামিং কোড। কিভাবে স্পামিং কোড ব্যবহার করে?
     নিচে কিছু কোড দিয়ে দিলাম । এই কোড গুলা আপনার ফ্রেন্ডদের দিন। এবং এমন ভাবে বলুন যাতে তারা সেগুলো তাদের প্রোফাইল পিকচার বা অন্য কোনো যেকোনো পিকচার অথবা পোস্টে কমেন্ট করতে বলুন । এমন ভাবে বলুন যেন তারা করে । যেমন বলুন ৫০০ অটো লাইক , বা কালার চেঞ্জ হবে ইত্যাদি বলুন। এগুলো কমেন্ট করলে আইডি ডিজেবল হয়ে যাবে ১০০%। এগুলা মূলত ফেসবুক ব্যান কোড। আমি এই বিষয়টা আপনাদেরকে জানাচ্ছি আপনাদেরকে শুধুমাত্র শেখানোর জন্য, কোন প্রকার খারাপ কোনো কার্যকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য না। এই কথাটা মনে রাখবেন।
    http://#582838195919
    http://#83816818481
    http://#8381859195
    http://#1939838482939
    http://#9494939383
    http://#5728385828
    http://#938385883
    http://#939394948463
    http://#17271747483842
    http://#95838372721
    http://#582849101
    http://#92958291929
    http://#39194919294
    http://#92929102051
    http://#962919191916
    http://#9682682816
    http://#94719581742
    http://#92817481741
    http://#381637184
    http://#92928383718
    http://#525254
    কমেন্ট করার সময় # বাদ দিয়ে কমেন্ট করুন ।

    ধন্যবাদ , আজ এ পর্যন্তই । আবারো দেখা হবে নতুন কোন পোস্ট এ । পোস্ট টি যদি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।
    Copyright © MR Laboratory
    Newer post Older post

    RELATED ARTICLES