চেয়েছিলাম বন্ধু নিয়ে লিখবো না, কারণ বন্ধু নিয়ে লিখতে গেলে অনেকেরই গায়ে বাজবে।


     চেয়েছিলাম বন্ধু নিয়ে লিখবো না, কারণ বন্ধু নিয়ে লিখতে গেলে অনেকেরই গায়ে বাজবে। 


    অনেক ম্যান ভাববে শালায় আমাদের বন্ধুদের ভিতরে প্যাচ যাকে সোজাসাপটা ভাষায় আমরা আউল বা ঘ্যানজাম বলি এই প্যাচ লাগাতে চায় বলেই  বন্ধু নিয়ে বাজে আর্টিকেল লিখছে।

    যারা এইরকমের চিন্তাভাবনায় আছেন তাদের উদ্দেশ্য বলি আপনার আর আপনার বন্ধুুর মধ্য প্যাচ লাগালে আমার কি লাভ হবে???
    কিছুই লাভ হবে না, আমি একজন মুসলিম।
    আমার মুসলিম হিসেবে একজনকে ইসলামের পথে দাওয়াত দিলে পরকালে আমার লাভের অংশটুকু দেখতে পাবো ।

    এন্যিওয়ে মুল টপিকে ব্যাক করি

    বন্ধু বলতে পৃথিবীতে কিচ্ছু হয় না, যতোদিন একই ছাদের নিচে আছেন, ততোদিনই আপনার বন্ধু আছে।
     এটা আমার কথা না,  এটা বাস্তবতার কথা
    আপনি মনে করে দেখুন স্কুল লাইফে আপনার কতো প্রিয় বন্ধু ছিলো যাদের সাথে আপনার সকালে দুপুরে রাতে সবসময় ফোনে বা সামনাসামনি কথা হতো, বিকালে ঘুরতে যেতেন একসাথে।
    যেই স্কুল লাইফটাকে পার করেছেন, সেই বন্ধুরা আপনাকে সপ্তাহের ভিতরে একদিন ও কি ফোন করে খোজ খবর নেয়।
    নেয় না তাইতো? আগেই বলেছিলাম।

    কলেজে যেই বন্ধুদের  সাথে সবচেয়ে বেশি আনন্দের সময় কাটাইছিলেন, কত্তো ইনজয় করেছেন কল্পনা করে দেখুন তো, জানের জান সেই বন্ধু আজ আপনার কি খবর নেয়?

    সন্ধা বেলায় পড়ার সময় বন্ধু ফোন দিয়ে বলে অমুক জায়গায় চল আজ মজা হবে অনেক অনেক, সেই বন্ধুর পাল্লায় পরে রাত বারোটা বাজে বাড়িতে ফিরেছেন।  কত্তো  সময় ব্যায় করেছেন ভেবে দেখেছেন একবারো?

    এই সময় গুলো ব্যায় না করে যদি ফিজিক্স পড়তেন বা আপনার কঠিন সাবজেক্ট পড়তেন, আজ সেই সাবজেক্ট আপনার কাছে একদম পানির মতো হয়ে যেতো, চোখ বুজে ঠুঠাস্থ বলতে পারতেন।

    জীবনে ভালো বন্ধুর আগমন ঘটলে অনেক কিছুই হয়, রিতিমতো আপনাকে সাফল্য অর্জনের জন্য মোটিভেশন করবে।
    কিন্ত সমস্যা হলো যদিও আপনার জীবনে ভালো বন্ধু আসে তাহলে বুঝতে পারার মতো ক্ষমতা থাকেনা।

    আমার দেখা ৯৯% ই খারাপ বন্ধু দেখেছি, যারা শুধু আপনার মুল্যবান সময় নষ্ট করার জন্য লেগে থাকবে, আর পকেটের টাকা খসানোর জন্য পড়ে থাকবে।
    তবে একটা সময় যখন একইস্হানে থাকবেন না সেসময় আপনার আর খবর নিবে না।

    ওইযে উপরে বলেছিলাম মনে আছে একই ছাদের নিচে যতোদিন অবস্থান করছেন ততদিন ই এই বন্ধত্বের সম্পর্কটা থাকবে।

    মুলত মানুষ একে অপরের কাছে তখনই যায়, যখন তার নিজ প্রয়োজন পরে।
    প্রয়োজন ছাড়া কেউ কারো কাছে যায়না।

    এই লেখাটি লেখার উদ্দেশ্য হলো যারা বন্ধুদের প্রতি বেশিই আসক্ত, একটা সময় ও বন্ধু ছাড়া পার করে না ; শুধু তাদের উদ্দেশ্যে।

    বাস্তব জীবনে বন্ধু থাকবে আপনার থাকুক কিন্তু বন্ধুর দ্বারা কতোটুকু উপকৃত হচ্ছেন, কতোটুকু ভালো উপদেশ দিচ্ছে তা বিবেচনা করে দেইখেন।

    নাকি আপনার জীবনটাকে ধ্বংসের জন্য প্রস্তুত করছে বন্ধুরা তাও চিন্তা করে দেখুন।

    #মোঃ হৃদয় 


    from Know Shareing Your Knowledge http://bit.ly/2JatCHp
    via MY blog
    Copyright © MR Laboratory
    Newer post Older post

    RELATED ARTICLES