কিভাবে যে কোন কাজে মন স্থির বসাবেন, এবং কিভাবে সফল হবেন, যে কোন কাজে। ( ২ মিনিট সময় নিয়ে পড়ুন) হয়তো পাল্টে যেতে পারে জীবন


                বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম ।



    আমাদের একটাই রোগ মানে একটাই সমস্যা তা হলো কোন কাজ করা শুরু করলে তখন কিছুক্ষণ পর আর ওই কাজের প্রতি মন স্থির করে রাখতে পারিনা।
     এর ফলেই আমাদেরকে সাফল্য স্পর্শ করতে পারে না ।
    তো চলুন আজকের এই আর্টিকেলে বা পোস্টে কিভাবে আপনি এই মনটাকে যেকোনো কাজেই স্থির করে রাখতে পারেন, এই বিষয়ে লিখতে বসেছি ।

    আচ্ছা প্রথম স্টুডেন্ট দের উদ্দেশ্যে লিখি , আপনি যখন পড়তে বসেন তখন আধা ঘন্টা এক ঘন্টা যাওয়ার পরেই আপনারা করতে ইচ্ছে করে না তাই তো ।
    একটু ঘুরতে ইচ্ছা করে বা বন্ধুদের সাথে হাঁটতে ইচ্ছা করে??
     আপনি উত্তর নিশ্চয়ই বলবেন হ্যাঁ করে তো।
     এখন কি করবো সমাধান দিন।
     আচ্ছা ভাই একটু অপেক্ষা করুন ,
    একটা কথা জিজ্ঞেস করি আপনি কোন কাজ?
     করতে গেলে সময় তাড়াতাড়ি কেটে যায় ।

    হয়তো বা বলবেন ম্যাসেঞ্জারে চ্যাটিং করার সময় এতো এতো ভালো লাগে যে ,
    রাত আটটা বাজে ফোনের ডাটা অন করে মেসেঞ্জারে ঢুকলে কখন যে রাত ১:৩০ বেজে যায় তা টেরই পাই না।
     অথবা আপনি যখন ফোনে ৩০০ মিনিট ঢুকিয়ে,  আপনার গার্লফ্রেন্ডের সাথে ফোনে কথা বলা শুরু করেন ;
    তখন ফোনের ৩০০ মিনিট যে কখন শেষ হয়ে যায় তা হয়তো নিজেই টের পান না,
     ঠিক বলছি তো???

      এখানে লক্ষ্য করুন,  এখানে লক্ষ্য করুন আমি যে ২ টি উদাহরণ দিলাম মেসেঞ্জার ও গার্লফ্রেন্ড নিয়ে, মনে আছে তো আপনার ???
    *আপনি যখন কোন কাজ এভাবে ইনজয় এর সাথে করতে পারবেন,
    তখন সত্যিই আপনার যে কোন কাজে, মন বসাতে পারবেন ।
     আর একটু স্পষ্ট করে বলি আপনি যখন পড়তে বসেন,  তখন কিছুক্ষণ পরেই আর পড়তে ইচ্ছে করে না,  না করাটা কিন্তু অস্বাভাবিক নয়।
    তেমনি আপনি যখন বাইসাইকেল চালান তখনো কিন্তু আধা ঘন্টা এক ঘন্টা চালানোর পরে আর চালাতে ইচ্ছে না করারই কথা ।

    পৃথিবীতে সকল কাজেই কিন্তু কষ্ট আছে।
     তাই কাজটাকে আপনি যদি আনন্দের সাথে করেন, তাহলেই দেখবেন আপনার মন স্থির করতে পেরেছেন।
    আর একান্ত মন স্থির করতে না পারলে কাজ বা পড়ার ফাঁকে প্রিয়জনের সাথে পাঁচ মিনিট কথা বলুন,
    আর গার্লফ্রেন্ড না থাকলে একটু আনন্দের গান শুনেন এবং আবার নিজের কাজে বা পড়ায় মনোযোগ দিন ।
    দেখবেন কাজ বা  পড়াটা সাকসেস ভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছেন।
     সবশেষে একটা কথা বলি,  নিজেকে আপনি নিজেই প্রশ্ন করুন; সারাদিন কি কাজ করলাম??? তাতে আমার লাইফের কতটা প্রতিষ্ঠিত করার জন্য অগ্রসর হতে পেরেছি???
    নিজেকে প্রশ্ন করুন।
    মনে রাখবেন, সময় টাকে যেভাবে কাটাবেন; ইহকাল ও পরকালে সেভাবেই ফল পাবেন।

    ভুল ত্রুটি হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।
     ফেসবুকে আমি facebook.com/wdridoy.4
    #মোঃ হৃদয়



    from Know Shareing Your Knowledge http://bit.ly/31LHYqi
    via MY blog
    Copyright © MR Laboratory
    Newer post Older post

    RELATED ARTICLES